বাংলাদেশ নিউজরাজনীতি

মুরাদ টাকলার খেল খতম!

রাজপথে নেমে গেছে তৌহিদী জনতা| এবার ঠেলা সামলা! পালানোর পথ খুজে পাবেনা

মুরাদ টাকলার খেল খতম!

রাজপথে নেমে গেছে তৌহিদী জনতা| মুরাদ টাকলার খেল খতম! এবার ঠেলা সামলা! পালানোর পথ খুজে পাবেনা।

 

রাষ্ট্র ধর্ম ইসলাম নিয়ে বক্তব্য দেওয়ায় তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডাক্তার মুরাদ হাসান কে মন্ত্রিসভা থেকে বহিষ্কার এবং তার শাস্তি দাবি করেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ।

শনিবার বিকেলে বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটে থেকে আয়োজিত এক জনসভায়া থে্কে এ দাবি তোলা হয়। ঢাকা মহানগর শাখা আয়োজিত সমাবেশে ইসলামী আন্দোলনের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম বলেন রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম থাকবে এটা মীমাংসিত বিষয় এটা নিয়ে বাড়াবাড়ি করবেন না।Pori Moni News – Parimani kept the secret

প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ ও তার পদত্যাগ দাবি করেন দলটির ঢাকা মহানগর উত্তর এর সেক্রেটারি মাওলানা আরিফুল ইসলাম।

তিনি বলেন পরিস্থিতি আরও কতটা ভয়াবহ হবে তা সরকারের সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করবে। সরকার যেভাবে বক্তব্য দিচ্ছে তাতে সরকার আরেকটা দাঙ্গা করতে চায়। তথ্য প্রতিমন্ত্রী কে উদ্দেশ্য করে দপ্তর সম্পাদক লোকমান বলেন আপনি সংবিধান মানে না আমরা আপনাকে মন্ত্রী হিসেবে মারি না। বাংলাদেশ সৌদির পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মধ্যে টেলিফোনে আলোচনা আজ! প্রবাস নিউজ

সভাপতির বক্তব্যে শেখ ফজলে বারী মাসউদ বলেন কোরআন অবমাননা নিয়ে তথ্য মন্ত্রীর বক্তব্য নেই। উল্টো কোরআন আর ইসলামের বিরুদ্ধে বক্তব্য দিয়ে সরকারকে জনগণের মুখোমুখি দাঁড় করানোর চেষ্টা করছে। রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম একটি মীমাংসিত বিষয়. নিয়ে নতুন করে চক্রান্তের সুযোগ নেই. রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম নিয়ে চক্রান্ত করে আক্রান্ত মুসলমানরা রুখে দেবে।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী কে বয়কট করার আহবান জানিয়ে আল মাদানী বলেন পুরাত কে বয়কট করুন ওর জানাযায় হবে না, পানিতে ভাসা দাও, আগুনে পুড়িয়ে দাও ওরা কাফেরদের থেকেও থেকেও অনেক অনেক ভয়ঙ্কর।

একদিকে মাওলানা উবায়দুর রহমান খানঁ নদভী বলেছেন সংসদে কোনো বিলবারা সংশোধনী এনে রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম আর কোনদিন বাতিল করা যাবে না। কারণ শেখ হাসিনা 2011 সালের সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনী পাশ করান. একটি অনুচ্ছেদ কে সংবিধানের মৌলিক কাঠামো হিসেবে নির্ধারণ করা হয়েছে।মুসুল্লীদের নামাজের জন্য খুলে দেওয়া হলো মসজিদুল হারাম। বিস্তারিত দেখুন

এই মৌলিক কাঠামো কারো পক্ষেই সংশোধন করা সম্ভব নয়. বর্তমান সংবিধান অনুযায়ী রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বলেছেন সংবিধানের প্রথম ভাগের অংশ. আর সংবিধানের প্রথম ভাগ হলো সংশোধনী অযোগ্য। কোন দল বা গোষ্ঠী আদালত এমনকি জাতীয় সংসদ চাইলেও সংবিধানের মৌলিক কাঠামো সংশোধন করতে পারবেনা। তারা জোর গলায় রাষ্ট্রধর্ম তুলে দেওয়ার দিন তারিখ ঘোষণা করতেন তাদের উচিত হবে সংবিধান ভালো করে পড়ে নেওয়া. অথবা প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে বেপারটী খুঁজে নেওয়া।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button